1. admin@dainiksomoy24.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৮:১২ অপরাহ্ন
নোটিশ :
২০১৮ সাল থেকে সংবাদ পরিবেশনে জনপ্রিয় দৈনিক সময় ২৪.কম। সারা বাংলাদেশের সকল জেলা ও উপজেলা এবং স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে যোগাযোগ করুন 01716605694
শিরোনাম :
ট্রেনের ধাক্কায় এক যুবকের মৃত্য পটুয়াখালী কুয়াকাটা মহাসড়কে রোমার সোনালী পরিবহনের চাপায় ভাঙ্গারী ব্যবসায়ী নিহত বাসাপ এর জমকালো ৩৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ই মেইল করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে হত্যার হুমকি মৌলভীবাজারে জেলা ছাত্রদলের উদ্যোগে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত মৌসুমী শপথ নিলেন নিপুণকে বরণ করে সমিতির কার্যক্রমে অংশ নিলেন ডিপজল রুবেল বিএমএসএফের নির্বাহী কমিটি স্থগিত করেছে ট্রাস্টি বোর্ড বিএনপি এখন আম্মা ভাইয়া গ্রুপে বিভক্ত : শামীম ওসমান দুদক রাঘববোয়ালদের নয় চুনোপুঁটিদের ধরতে ব্যস্ত : হাইকোর্ট দীর্ঘ পাঁচ মাস চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরছেন রওশন এরশাদ

ক্যাসিনোকাণ্ডে আলোচিত এনু ও রুপন সহ ১১ জনের বিরুদ্ধে আজ রায় ঘোষণা

দৈনিক সময়ের পত্রিকা ২৪.কম
  • আপডেট সময় : বুধবার, ৬ এপ্রিল, ২০২২
  • ৭৮ বার পঠিত

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : এইচ এম বিল্লাল হোসেন রাজু

 

 

ক্যাসিনোকাণ্ডে আলোচিত পুরান ঢাকার একই পরিবারে আপন দুই ভাই এনামুল হক ভূঁইয়া এনু ও রুপন ভূঁইয়াসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে করা মামলার রায় ঘোষণার জন্য বুধবার (৬ এপ্রিল) দিন ধার্য রয়েছে। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ইকবাল হোসেনের আদালত এ রায় ঘোষণা করবেন।

 

 

এর আগে গত ১৬ মার্চ যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন শেষে আদালত রায়ের জন্য দিন ধার্য করেন।

 

বিজ্ঞাপন

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৯ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের ক্যাসিনো খেলা পরিচালনাকারী এনুর কর্মচারী আবুল কালাম আজাদের ওয়ারির লালমোহন সাহা স্ট্রিটের বাড়ি ঘেরাও করে র‌্যাব।

 

কালামের স্ত্রী ও মেয়ের দেখানো মতে চতুর্থ তলার বাড়ির দ্বিতীয় তলা থেকে দুই কোটি টাকা উদ্ধার করে র‌্যাব। এ ঘটনায় র‌্যাব-৩ এর পুলিশ পরিদর্শক (শহর ও যান) জিয়াউল হাসান ২৫ নভেম্বর ওয়ারি থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

 

 

মামলায় অভিযোগ করা হয়, এনু ও রুপন দীর্ঘদিন ক্যাসিনো পরিচালনার মাধ্যমে কোটি টাকা উপার্জন করে আসছেন।ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান পরিচালিত হলে তারা নিজেদের অপকর্ম আড়াল করার জন্য অবৈধভাবে উপার্জিত অর্থ গোপন করতে কালামের বাসায় রেখেছিলেন। কালাম সেগুলো নিজের কাছে রাখেন, যা মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনের অপরাধ।

 

 

মামলাটি তদন্ত করে ২০২০ সালের ২১ জুলাই ১১ জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করেন সিআইডির পরিদর্শক মোহাম্মদ ছাদেক আলী।

 

 

গত বছরের ৫ ই জানুয়ারি আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত, মামলাটির বিচার চলাকালে আদালত ২০ জন সাক্ষীর মধ্যে ১০ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন।

 

এ মামলার অপর আসামিরা হলেন- মেরাজুল হক ভূঁইয়া শিপলু, রশিদুল হক ভূঁইয়া, সহিদুল হক ভূঁইয়া, পাভেল রহমান, তুহিন মুন্সি, আবুল কালাম আজাদ, নবীর হোসেন শিকদার ও সাইফুল ইসলাম।

 

আসামিদের মধ্যে শিপলু, রশিদুল, সহিদুল ও পাভেল মামলার শুরু থেকে পলাতক। অপর ৬ জন আসামি কারাগারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

আর্কাইভ

ফেসবুকে আমরা