1. admin@dainiksomoy24.com : admin :
শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ০৭:২৫ অপরাহ্ন
নোটিশ :
২০১৮ সাল থেকে সংবাদ পরিবেশনে জনপ্রিয় দৈনিক সময় ২৪.কম। সারা বাংলাদেশের সকল জেলা ও উপজেলা এবং স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে যোগাযোগ করুন 01716605694
শিরোনাম :
২৮ জুন থেকে ১৬ জুলাই পর্যন্ত ১৯ দিন প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পাঠদান বন্ধ গাঁজা সেবন না করে নামাজ পড়তে বলায় বেধড়ক মারধর একদিন পর কিশোরের মৃত্যু বিএমএসএফ সভাপতি’র নেতৃত্বে বানভাসী মানুষের মাঝে খাবার ও বস্ত্র বিতরণ কুড়িগ্রামে পানিবন্দী হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে দুই লক্ষাধিক মানুষ এখন প্রধানমন্ত্রীর নজর দিতে হবে দেশের গণতন্ত্রের দিকে : জাফরুল্লাহ চৌধুরী পদ্মা সেতু দেশের মানুষের সহযোগিতায় করতে সক্ষম হয়েছি : প্রধানমন্ত্রী মির্জাপুরে পানির তীব্র স্রোতে আদাবা‌ড়ির সেতু ভে‌ঙে ১৫টি গ্রা‌মের সঙ্গে যোগা‌যোগ বি‌চ্ছিন্ন কণ্ঠশিল্পী তাশরীফকে ত্রাণ সহায়তা কার্যক্রমে সর্বাত্মক সহায়তা করবে পুলিশ বেগম জিয়া হাসপাতালে থেকে করোনার ঝুঁকির কারণে বাসায় ভারত থেকে অবৈধভাবে বাংলাদেশে প্রবেশকালে ১২ জনকে আটক করেছে : বিজিবি

অর্থ আত্মসাতের মামলায় জামিনের বের হলো ইউপি চেয়ারম্যান রাজকীয় সংবর্ধনা এলাকায়

দৈনিক সময় ২৪
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২১ এপ্রিল, ২০২২
  • ৪২ বার পঠিত

 

চট্টগ্রাম জেলা প্রতিনিধি:

 

 

 

ফটিকছড়ির দাঁতমারা ইউপি চেয়ারম্যান মো. জানে আলমকে সরকারি কর্মসৃজন প্রকল্পের অর্থ আত্মসাতের দায়ে দুদকের মামলায় জেল হাজতে পাঠিয়েছিল আদালত।

 

 

 

তবে ৮ দিনের মাথায় গতকাল হাইকোর্টের আদেশে ৬ সপ্তাহের অন্তবর্তীকালিন জামিন আদেশ পেয়ে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তি লাভ করেছেন তিনি।

 

 

 

এদিকে দুদকের মামলায় কারাগার থেকে মুক্ত হওয়ার পর চেয়ারম্যান মোঃ জানে আলমকে রাজকীয় সংবর্ধনায় বরণ করে নিয়েছে দাতঁমারা ইউনিয়নবাসী।

 

 

 

বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) সকালে তিনি এলাকায় পৌঁছলে ফটিকছড়ির বিবিরহাট উৎসব কমিউনিটি সেন্টারের সামনে থেকে কয়েকশ মোটর সাইকেল নিয়ে তাঁর কর্মীসমর্থকেরা বরণ করে নেন।

 

 

 

এ সময় উপস্থিত নেতৃবৃন্দের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে চেয়ারম্যান জানে আলম বলেন, আমার শেষ রক্তবিন্দু থাকা পর্যন্ত দাতঁমারাবাসীর সেবা করে যাব। মামলা হামলা করে উন্নয়ন বাধাগ্রস্থ করা যাবে না। আমি দাতঁমারাবাসীর প্রতি চিরঋণী হয়ে গেলাম।

 

 

এদিকে ইউপি চেয়ারম্যানের এই রাজকীয় সংবর্ধনা নিয়ে পুরো ফটিকছড়ি উপজেলার সাধারণ মানুষের মধ্যে কানাঘুষা চলছে। সরকারি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে জেলে যাওয়ার তকমা লাগালেও রাজকীয় সংবর্ধনা চেয়ারম্যান কিভাবে নিলেন, এমন প্রশ্ন তাদের। স্বয়ং দাঁতমারা ইউনিয়নের অনেক সাধারণ মানুষও বিব্রত বলে জানা যায়।

 

 

 

তথ্যমতে গত ১২ এপ্রিল চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আজিজ আহমেদ ভুঁইয়া শুনানি শেষে চেয়ারম্যান মো. জানে আলমকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। মামলার শুনানিতে রাষ্ট্র পক্ষে অংশ নিয়েছিলেন দুদকের পিপি অ্যাড. মুজিবুর রহমান চৌধুরী।

 

 

 

এর আগে গত ২৬ জানুয়ারি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ফটিকছড়ির দাঁতমারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জানে আলমসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে দুদকের চট্টগ্রাম সমন্বিত জেলা কার্যালয়-২ এ মামলাটি দায়ের করেন কার্যালয়টির সহকারী পরিচালক মো. নুরুল ইসলাম।

 

 

 

মামলার আসামিরা হলেন, দাঁতমারা ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান জানে আলম, ফটিকছড়ির কৃষি ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপক মুহাম্মদ আজিজুল হক,

 

 

 

একই ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তা সুজিত কুমার নাথ, ক্যাশিয়ার আবুল কাশেম ও তৎকালীন ট্যাগ অফিসার প্রণবেশ মহাজন।

 

 

 

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ২০১৫-১৬ অর্থবছরের ১ম ও ২য় পর্যায়ের মোট ৮০ দিনের কর্মসৃজন প্রকল্পের দৈনিক ২০০ টাকা মজুরি হারে ৪১ জন শ্রমিকের ৬ লাখ ৫৬ হাজার টাকা ক্ষমতার অপব্যবহার করে অসৎ উদ্দেশ্যে প্রকল্পে ভুয়া শ্রমিক দেখিয়ে আত্মসাৎ করা হয়।

 

 

 

তারা কেউই শ্রমিক নয় এবং সকলেই স্বাবলম্বী। তাদের মধ্যে স্কুল প্রধান শিক্ষক, পুলিশ সদস্য, গ্রাম পুলিশ, প্রবাসী, ব্যবসায়ী, চিকিৎসক এবং রাজনৈতিক ব্যক্তিদের নাম ছিল। তারা কখনো কৃষি ব্যাংকে যান নাই কিংবা হিসাব খোলেননি এবং টাকাও উত্তোলন করেননি।

 

 

 

 

এরপর ২০২০ সালে দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক মো. শরীফ উদ্দিন তদন্ত করে ৪১ জন শ্রমিকের অর্থ আত্মসাতের দালিলিক প্রমাণ পাওয়ায় চেয়ারম্যানসহ বাকিদের বিরুদ্ধে মামলার সুপারিশ করে দুদক কমিশনের প্রতিবেদন জমা দেন।

 

 

 

মামলা দায়েরের পর চেয়ারম্যান জানে আলম মহামান্য হাইকোর্ট থেকে ৬ সপ্তাহের আগাম জামিন নিয়েছিলেন। হাইকোর্টের দেয়া আগাম জামিনের সময়সীমা শেষ হওয়ায় চেয়ারম্যান জানে আলম জজ কোর্টে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করলে বিচারক তার জামিন নামঞ্জুর করে জেলে পাঠানোর আদেশ দেন। পরে মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) হাইকোর্ট জামিন দিয়েছেন তাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

আর্কাইভ

ফেসবুকে আমরা