1. admin@dainiksomoy24.com : admin :
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:০৪ অপরাহ্ন
নোটিশ :
২০১৮ সাল থেকে সংবাদ পরিবেশনে জনপ্রিয় দৈনিক সময় ২৪.কম। সারা বাংলাদেশের সকল জেলা ও উপজেলা এবং স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে যোগাযোগ করুন 01716605694
শিরোনাম :
রাস্তায় নয় বিএনপি টঙ্গী ইজতেমা মাঠ অথবা পূর্বাচল বাণিজ্য মেলার মাঠেও সমাবেশ করতে পারে: ডিএমপি ময়লার গাড়ি ভাঙচুর মামলায় রিজভীর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি অলিদ তালুকদার কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ায় : জাতীয় মানবাধিকার সমিতির অভিনন্দন স্বরূপকাঠি উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত করায় আনন্দ মিছিল সাবেক মন্ত্রী এ বি এম গোলাম মোস্তফার মৃত্যুতে এনডিপির শোক জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সাংবাদিকদের উপর হামলা নতুন বছরে দেশে কোনো অর্থনৈতিক চাপ থাকবে না: পরিকল্পনামন্ত্রী সারাদেশে চলছে বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে গ্রেপ্তার আতঙ্ক ১১ বছর পর চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী বিএফএসএফ প্রতিষ্ঠাতা আবু জাফরকে হত্যার হুমকির ঘটনায় থানায় জিডি

পবিপ্রবির প্রশাসনের বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ

দৈনিক সময়ের পত্রিকা ২৪.কম
  • আপডেট সময় : শনিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২২
  • ১৫৫ বার পঠিত

 

পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধিঃ

 

 

 

 

 

 

 

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের বিরুদ্ধে নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে । বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের অনুমোদন ব্যতীত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ, নিয়োগ কার্যক্রম শুরুর আগেই অত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাবশালী শিক্ষকদের মেয়ে ও বাগদত্তা স্ত্রীর নিয়োগসহ অন্যান্য পদেও প্রার্থী চূড়ান্ত করার নানা অভিযোগ উঠেছে ।

 

 

 

 

 

 

সূত্র মতে, গত ১৭ অক্টোবর, ২০২২ তারিখে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ১২টি প্রভাষক পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এই নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করার ক্ষেত্রে পবিপ্রবি কর্তৃপক্ষ শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সকল নিয়মকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগ প্রদানের আগে প্রতিটি ক্ষেত্রে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন থেকে সংশ্লিষ্ট পদটি লিখিতভাবে অনুমোদন করিয়ে নেওয়ার একটি সুস্পষ্ট নীতিমালা রয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের। আগের সকল ভাইস-চ্যান্সেলর এই নীতিমালা অনুসরণ করে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলেও বর্তমান প্রশাসন তার তোয়াক্কা করছে না।

 

 

 

 

 

 

 

এছাড়াও গত ২৬ মে, ২০২২ তারিখে প্রকাশিত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির কার্যক্রম সম্প্রতি শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রশাসন। এক্ষেত্রেও কেবল মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। কিন্তু মৌখিক পরীক্ষার আগেই কোন পদে সম্ভাব্য কাদের চাকুরী হবে তা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের সকলের মুখে মুখে।

 

 

 

 

 

মোঃ আশিকুর রহমান নামের চাকুরী প্রত্যাশী এক প্রার্থীর ভাই অভিযোগ করে বলেন, উদ্যানতত্ত্ব বিভাগে হাবিবা জান্নাত মিম, জেনেটিক্স এন্ড প্লান্ট ব্রীডিং বিভাগে মোঃ ইব্রাহীম খলিল, কমিউনিটি হেলথ এন্ড হাইজিন বিভাগে সুবর্ণা ঘোষ অথবা ফজিলাতুন্নেছা ইমু, এনভারমেন্টাল স্যানিটেশন বিভাগে মো: হাসিব, প্যাথলজি এন্ড প্যারাসাইটোলজি বিভাগে শম্পা রানী, ফুড মাইক্রোবায়োলজি বিভাগে মোকাম্মেল হক শাওন এর চাকরি নিয়োগ কার্যক্রম শুরুর আগেই ইতিমধ্যে নিশ্চিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এছাড়াও নিয়োগ প্রদান করার কার্যক্রম শুরুর আগেই প্রার্থী চূড়ান্ত হওয়ায় নিয়োগ বাণিজ্যের গন্ধ পাচ্ছেন সবাই । উল্লেখিত প্রার্থীদের মধ্যে হাবিবা জান্নাত মিম পবিপ্রবির সাবেক প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর ও উদ্যানতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীর মেয়ে। ক্যাম্পাসে গুঞ্জন রয়েছে, পিতার আশীর্বাদে কন্যার ভালো ফলাফল অর্জন ও পিতার বিভাগেই মাস্টার্স সম্পন্ন করা হাবিবা জান্নাত মিম এখন পিতার প্রভাবে পিতার বিভাগেই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হতে চলেছেন।

 

 

 

 

 

এছাড়াও, জেনেটিক্স এন্ড প্লান্ট ব্রীডিং বিভাগে চূড়ান্ত হওয়া মোঃ ইব্রাহিম খলিল সাবেক প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক মোহাম্মদ আলীর উক্ত কন্যা হাবিবা জান্নাতি মীমের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার শর্তে চাকরি বাগিয়ে নিচ্ছেন। অন্যদিকে, ফুড মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের মোকাম্মেল হোসেন শাওনকে ভাইবার প্রবেশপত্র দেওয়া হলেও তিনি মাস্টার্স করেছেন সাসটেইনেবল এগ্রি এন্ড ফুড সিকিউরিটিতে। কমিউনিটি হেলথ এন্ড হাইজিন বিভাগের প্রভাষক পদটি নিয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগের চেয়ারম্যান সহযোগী অধ্যাপক সুজন কান্তি মালী ও উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোঃ রুবেল হোসেন জড়িয়ে পড়েছেন দ্বন্দ্বে। সুজন কান্তি মালি তার প্রেমিকা ও কথিত বাগদত্তা স্ত্রী সুবর্না ঘোষের চাকরি চূড়ান্ত করতে চাচ্ছেন। সুজন কান্তি মালি ইতিপূর্বে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি করে পরে তা থেকে সরে আসলে, ওই শিক্ষার্থী ক্যাম্পাসে এসে তাকে অপমানও করে যান বলে অভিযোগ রয়েছে। অন্যদিকে মো: রুবেল হোসেন তার স্ত্রী ফজিলাতুন্নেসা ইমুর চাকরি চাচ্ছেন। ফজিলাতুন্নেসা ইমুর অনার্সে একটি বিষয়ে ফেল ও রিটেক থাকায় পূর্বের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ডঃ হারুনুর রশিদ ইতিপূর্বে তাকে প্রবেশপত্র ইস্যু করেনি। এছাড়া নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির ১ নম্বর শর্ত অনুযায়ী মাত্র ১০ জনকে প্রবেশপত্র দেয়ার কথা উল্লেখ থাকলেও ফজিলাতুন্নেছা ইমুকে প্রবেশপত্র দেওয়ার জন্য নিয়ম ভঙ্গ করে পবিপ্রবি প্রশাসন এই পদে ১৩ জনকে প্রবেশপত্র দিয়েছেন।

 

 

 

এবিষয়ে রেজিস্ট্রার ড. কামরুল ইসলাম বলেন, এখন পর্যন্ত কোন কার্যক্রম শুরু হয়নি আর নিয়োগ বানিজ্যেরতো কোন প্রশ্নই উঠে না। তাছাড়া কোন ধরনের অনিয়মের অভিযোগ পাইনি এখনও।

 

 

 

সকল অভিযোগ অস্বীকার করে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত বলেন, নিয়োগ বানিজ্যের বিষয়টি সম্পুর্ন মিথ্যা এবং কাউকে আমরা ঠিক করে রাখিনি। পরীক্ষার মাধ্যমে জিনি টিকবেন তাকেই নেয়া হবে। এর বাইরে কোন নিয়োগ দেয়া হবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  

ফেসবুকে আমরা